Skip to main content

কিভাবে এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করবেন

 বর্তমান উন্নত প্রযুক্তির সময়ে এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন আমাদের সকলের জন্য একটি প্রয়োজন হয়ে দাড়িয়েছে। আমরা আমাদের সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজে এই এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকি। একটি এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন আমাদের সকলের প্রাথমিক যোগাযোগ প্রয়োজন ও ভার্চুয়াল সেবা প্রদান করে থাকে। 


এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে ব্যবহার হওয়া বিভিন্ন এপস নিয়মিত তাদের ডেভেলপারদের কাছ থেকে আপডেট আসে এবং আমরা নিয়মিত আমাদের ব্যবহার করা এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে সেসব এপস আপডেট করে থাকি উন্নতমানের সিকিউরিটি সেবা ও বিভিন্ন নতুন ও চমকপ্রদ ফিচারের জন্য। 

কিন্তু, কখনো কখনো আমাদের ব্যবহার করা এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে ব্যবহৃত হওয়া এপস থেকে কখনো কখনো অনেক ফিচার আপডেটের মাধ্যমে সরিয়ে নেওয়া হয়। এবং এই বিষয়টি আমাদের সকলের জন্য অনেক হতাশার হয়ে উঠে। অনেক সময় আপডেটের মাধ্যমে আমাদের পছন্দের কিংবা প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ফিচার সরিয়ে নেওয়া হয়। 

তখন সেই এপসের পুরাতন ফিচার ব্যবহার করার জন্য আমাদের সেই এপসের পুরাতন ভার্সন প্রয়োজন হয়ে উঠে। আর সেক্ষেত্রে একটি সমাধান হলো যে, ইন্টারনেটে বিভিন্ন সাইট থেকে সেই এপসের পুরাতন ভার্সন নামিয়ে ব্যবহার করা যায়। 

তবে, এক্ষেত্রে একটি অসুবিধা হলো যে আপনি নতুন এপস ইনস্টল করার মাধ্যমে আপনার পুরাতন সব ডাটা হারিয়ে ফেলছেন। আর এই ব্যপারটিই অনেককে হতাশ করে তুলে। 

কেমন হয়, যদি আপনি আপনার ব্যবহার করা এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করতে পারেন? তাও আবার পুরাতন কোন ডাটা হারানো ব্যতীতই? বিষয়টি একটু অস্বাভাবিক শোনালেও এই কাজটি সম্ভব।

সুতরাং, যদি আপনি আপনার এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করতে চান কোন রকম ডাটা হারানো ব্যতীত, তাহলে আজকের আর্টিকেল আপনার জন্য। আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাকে এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার উপায় সম্পর্কে জানাবো। 

এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার পূর্বশর্ত

কোন এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার পূর্বে কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস প্রয়োজন, যা আমাদের কম্পিউটার এবং স্মার্টফোনে পূর্ব হতেই ডাউনলোড করে রাখতে হবে।

  • এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার জন্য প্রথমে আপনার কম্পিউটারে ADB ইনস্টল করতে হবে। আর এক্ষেত্রে আপনি Minimal ADB & Fastboot অথবা official Google binaries ব্যবহার করতে পারেন।
  • তারপর আপনার এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে USB Debugging অপশনটি চালু করে দিন। চালু করার জন্য আপনি সরাসরিভাবে Setting > System > Developer Option থেকে USB Debugging চালু করে দিন।

এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার উপায়

যদি আপনি আপনার এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করতে চান, সেক্ষেত্রে আর্টিকেলে উল্লেখ করা আমাদের পদ্ধতি অনুসরণ করুন। 

  • সর্বপ্রথম আপনি যে এপসের পুরাতন ভার্সন ব্যবহার করতে চাচ্ছেন, ঠিক সেই ভার্সনটি ইন্টারনেট হতে আপনার কম্পিউটারে ডাউনলোড করে নিন। এক্ষেত্রে আপনি APKMirror সাইটটি ব্যবহার করতে পারেন। তাছাড়া, অবশ্যই আপনার মোবাইলটি USB ক্যবলের মাধ্যমে আপনার কম্পিউটারের সঙ্গে যুক্ত করে নিন। 
  • তারপর আপনি যেই ADB ফাইল পূর্বে ডাউনলোড করেছেন, তা Unzip করুন এবং তাতে উক্ত APK ফাইলটি কপি করে Paste করে দিন।
  • তারপর ADB ফোল্ডারেই কিবোর্ড হতে Shift Key চেপে ধরুন এবং যেকোন খালি স্থানে মাউজের রাইট ক্লিক করুন। তারপর সেখান হতে Open PowerShell Window Here অপশনে ক্লিক করুন।
  • তারপর Window PowerShell পেজে নিম্মোক্ত কমান্ড দু'টি টাইপ করে দিন। এক্ষেত্রে Your APK Name এর স্থানে আপনার APK এর নাম দিন।
  1. adb push nova.apk /sdcard/Your APK Name.apk
  2. adb shell pm install -r -d /sdcard/Your APK Name.apk
  • তারপর যদি আপনি আপনার স্মার্টফোনে এপসটি চেক করেন, তাহলে দেখতে পাবেন যে এপসটি Downgrade হয়ে গিয়েছে। 

এভাবে আপনি খুব সহজেই এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করতে পারবেন। তাও আবার কোনরকম ডাটা হারানো ব্যতীত।

নোটঃ এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার ক্ষেত্রে কিছুসময় Android Nougat 7.0+ ভার্সনের ক্ষেত্রে উপরোক্ত পদ্ধতি কার্যকর হয় না। কেননা, তখন Google Security এর জন্য বাধাপ্রাপ্ত হতে হয়। 

কোনরকম ডাটা হারানো ব্যতীতই এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার উপায়টি একটি বহুল উপকারী উপায়। সুতরাং, যদি আপনি আপনার এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করতে চান, তাহলে আর্টিকেলটি অনুসরণ করুন। 

এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার উপায় নিয়ে লেখা আমাদের আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগে থাকলে কমেন্ট ও শেয়ার করুন। এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে এপস Downgrade করার উপায় নিয়ে আপনার কোন মতামত থাকলে আমাদের জানাতে পারেন। 

Comments

Popular posts from this blog

কিভাবে এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনে নটিফিকেশন লুকাবেন

  বর্তমান সময়ে এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন আমাদের সকলের জন্য একটি প্রয়োজনীয় বস্তু হয়ে দাড়িয়েছে। আমাদের সার্বিকক যোগাযোগের জন্য সর্বপ্রথম আমরা এই এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনকে বেছে নিই। আমরা প্রতিনিয়ত আমাদের সকল কাজের জন্য এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনকে প্রাথমিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছি।  Google প্রায়ই কিছুদিন পর পর এন্ড্রোয়েড অপারেটিং সিস্টেমে নতুন কিছু আপডেট নিয়ে আসে। Google এবার Android Oreo ভার্সনে ইউজারদের জন্য নতুন একটি আপডেট এনেছে আর তা হলো, Android Background Notification নামে একটি ফিচার। এই Android Background Notification ফিচারটির মাধ্যমে আপনি আপনার Android Oreo ভার্সনে আপনার ব্যাকগ্রাউন্ডে রানিং থাকা সমস্ত এপস সম্পর্কে নোটিফিকেশন পাবেন এবং কোন কোন এপস আপনার ব্যাটারির ক্ষতি করছে, তা সম্পর্কে জানতে পারবেন। কিন্তু, এই Android Background Notification ফিচারটি ইউজারদের জন্য উপকারী হলেও, অনেক ইউজার এই Android Background Notification ফিচারটি ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে না। কেননা, একটু পর পর নোটিফিকেশন আসতে থাকা সকলের জন্যই বিরক্তির কারণ হয়ে দাড়ায়।  সুতরাং, যদি আপনি Android Oreo ভার্সনের এন

কিভাবে এন্ড্রোয়েড ফোনে একাধিক একাউন্ট করবেন

  আমাদের প্রাত্যাহিক জীবনে একটি এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন কতটুকু জরুরী, তা ভাষায় বুজিয়ে বলার আক্ষেপ রাখে না। একটি এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন আমাদের জীবনের সকল কাজ খুব সহজেই সমাধান করে দেয়। আমরা সকলেই আজকাল নিজেদের সার্বিক প্রয়োজনে এই এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকি।  বর্তমানে এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোনের একটি বিশেষ ফিচার হলো, Android Multiple User Account Feature। আমরা আমাদের নিজস্ব ব্যবহার করা এন্ড্রোয়েড স্মার্টফোন বিভিন্ন প্রয়োজনে অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করে থাকি। এক্ষেত্রে অবশ্যই আমরা আমাদের স্মার্টফোনের ব্যপারে তেমন একটি সিকিউরিটি নিশ্চিত করতে পারি না।  তাই, Google ইউজারদের সিকিউরিটি নিশ্চিত করতে এবার নিয়ে এলো Android Multiple User Account Feature নামে একটি ফিচার। এই Android Multiple User Account Feature ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার স্মার্টফোনে ইউজার একাউন্ট পরিবর্তন করে আপনার স্মার্টফোনটি অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন। এতে অন্যান্য কেউ আপনার পার্সোনাল ইনফরমেশনে সহজেই এক্সেস নিতে পারবে না এবং আপনাকে আপনার সিকিউরিটি নিয়ে চিন্তিত হতে হবে না। কিভাবে Android Multiple User Account Feature

উইন্ডোজ ১০ অটোমেটিক আপডেট বন্ধ করার উপায়

  উইন্ডোজ ১০ বর্তমান সময়ে বহুল ব্যবহৃত একটি গ্রাফিক্যাল অপারেটিং সিস্টেম। এই উইন্ডোজ ১০  অপারেটিং সিস্টেমটি মাইক্রোসফট কোম্পানির অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেমের তুলনায় বহুল ব্যবহৃত হয়েছে এবং বহুল প্রসিদ্ধও বটে। আমরা যারা নতুন কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ক্রয় করি, আমরা সকলেই মূলত এই উইন্ডোজ ১০ এর বিভিন্ন ভার্সন ব্যবহারের মাধ্যমে কম্পিউটার ব্যবহার শুরু করে থাকি। উইন্ডোজ ১০ এর অন্যান্য জনপ্রিয় ফিচারগুলো থেকে একটি ফিচার হচ্ছে, উইন্ডোজ ১০ অটোমেটিক আপডেট হওয়া। এই ফিচারটির মাধ্যমে মাইক্রোসফট থেকে রিলিজ করা সমস্ত আপডেট ইন্টারনেট কানেকশনের মাধ্যমে প্রতিটি কম্পিউটারে অটোমেটিক আপডেট হয়ে থাকে।  যদিও এই ফিচারটি বহুল জনপ্রিয়, কিন্তু অনেকের নিকট এই ফিচারটি একটি বিরক্তিকর কারন হয়ে উঠে। কিন্তু, উইন্ডোজ ১০ ভার্সনে উইন্ডোজ অটোমেটিক আপডেট হওয়ার বিষয়টি আপনার নিয়ন্ত্রণে নয়। কেননা, কোন সাধারণ মানুষ এই অটোমেটিক আপডেট ফিচারটি বন্ধ করতে পারেনা। সুতরাং, আপনি যদি আপনার ব্যবহার করা কম্পিউটারে উইন্ডোজ ১০ অটোমেটিক আপডেট বন্ধ করার উপায় জানতে চান, তাহলে আজকের আর্টিকেল আপনার জন্য। আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাকে উইন্ডোজ ১০ অটোমেটিক আ